ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম | Islami Bank Student Account

ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম | Islami Bank Student Accountস্টুডেন্টদের প্রয়োজনের কথা মাথায় রেখে বিভিন্ন আকর্ষণীয় সুযোগ-সুবিধাসহ ইসলামি ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড-এর আছে একটি বিশেষ অ্যাকাউন্ট । ইসলামী ব্যাংকের এই একাউন্টের নাম SMSA বা Student Mudaraba Savings Accoumt অর্থাৎ স্টুডেন্ট একাউন্ট

আরও পড়ুন: এবি ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট | AB Bank Student Account

আজকে “বাংলা আইটি ব্লগ ৩৬০”-এর ব্লগ পোষ্টের আলোচনায় ইসলামী ব্যাংকের স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে ।

আরও পড়ুন: ইসলামী ব্যাংক লোন পদ্ধতি | Islami Bank Loan System

ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম

অন্য পোস্ট : বাচ্চাদের ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২ | Rules for E-Passport for Children 2022

ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট এর আজকের এই আলোচনায় যে সকল বিষয় সম্পর্কে আলোচনা করা হবে তা হলো ----

  • কারা স্টুডেন্ট একাউন্ট করতে পারবে
  • ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট সুবিধা
  • স্টুডেন্ট একাউন্ট এর ফি এবং চার্জ সমূহ
  • ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট লিমিট
  • ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট করতে কি কি লাগে
  • ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট চেক
  • ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট মুনাফার হার
  • ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট ভিসা কার্ড
  • ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট অসুবিধা

কারা স্টুডেন্ট একাউন্ট করতে পারবে

যে কোনো ছাত্র অর্থাৎ স্টুডেন্ট ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট করতে পারবে । স্টুডেন্টের বয়স ১৮ থেকে বেশি হয় বা ১৮ থেকে কম হয় সবাই ইসলামী ব্যাংক এর স্টুডেন্ট একাউন্ট করতে পারবে । স্টুডেন্ট এর বয়স যদি ১৮ বছরের কম হয় তবে অ্যাকাউন্টটি পরিচালিত হবে স্টুডেন্টের অভিভাবকের স্বাক্ষরে অর্থাৎ একাউন্ট থাকবে স্টুডেন্টদের নামে কিন্তু অ্যাকাউন্ট খোলা বা লেনদেন এর জন্য অভিভাবকের স্বাক্ষর প্রয়োজন হবে ।

আর যদি স্টুডেন্টের বয়স ১৮ বছর বা তার থেকে বেশি হয় তাহলে অ্যাকাউন্টটি পরিচালিত হবে স্টুডেন্টের নিজের স্বাক্ষরে । এই অ্যাকাউন্ট খোলা বা লেনদেন এর জন্য অভিভাবকের স্বাক্ষর এর প্রয়োজন হবে না ।

ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট সুবিধা

১। ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট খুলতে চাইলে প্রাথমিক জমা মাত্র ১০০ টাকা দিয়েই এই একাউন্ট খোলা যাবে ।

২। একাউন্ট পরিচালনায় কোন প্রকার খরচ নেই ।

৩। অ্যাকাউন্ট থেকে যেকোনো সময় টাকা উত্তোলন করা যাবে ।

৪। প্রফিট রেট ও সাধারণ সেভিংস একাউন্টের মতই ।

৫। এই একাউন্ট করলে ভিসা বা এটিএম কার্ড ফ্রি পাওয়া যায় ।

৬। এসএমএস এবং ইন্টারনেট ব্যাংকিংসহ সাধারণ সেভিংস একাউন্টের প্রায় সকল সুবিধা পাওয়া যায় এই একাউন্টে ।

অন্য পোস্ট: বাংলাদেশের সকল জেলার টেলিফোন কোড | Telephone Codes All Districts of Bangladesh

Islami Bank Student Account

অন্য পোস্ট: স্কলারশিপ পাওয়ার সহজ উপায় | স্কলারশিপ কিভাবে পাওয়া যায়

স্টুডেন্ট একাউন্ট এর ফি এবং চার্জ সমূহ

একটি সেভিংস অ্যাকাউন্ট পরিচালনা করতে গেলে যে সমস্ত ফি এবং চার্জ দিতে হয় তার বেশিরভাগ ক্ষেত্রে স্টুডেন্ট একাউন্টে দিতে হয় না । যেমন –

১। স্টুডেন্ট একাউন্ট এর জন্য কোন প্রকার মেইনটেইন্যান্স খরচ নেই ।

২। ভিসা কার্ডের জন্য খরচ নেই ।

৩। এসএমএস চার্জ নেই ।

হ্যাঁ তবে মনে রাখতে হবে স্টুডেন্ট একাউন্টের জন্য যদি চেকবুক নেওয়া হয় সে ক্ষেত্রে চেকবুক এর জন্য খরচ দিতে হবে ।

ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট লিমিট

মনে রাখতে হবে এই স্টুডেন্ট একাউন্ট এর লেনদেনের পরিমাণ হতে হবে এমন, যেটা একজন স্টুডেন্ট এর জন্য যৌক্তিক এবং তার আয়ের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ । তারমানে সাধারন সেভিংস একাউন্ট এর মত বড় বড় এমাউন্টের লেনদেন এই একাউন্টে করা যাবে না । যেটা একজন স্টুডেন্টের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ নয় ।

ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট করতে কি কি লাগে

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ এর স্টুডেন্ট একাউন্ট করতে হলে আপনার যে সমস্ত কাগজপত্র বা ডকুমেন্টের প্রয়োজন হবে তা হলো -----

স্টুডেন্টের বয়স ১৮ বছরের বেশি হলে ---

১। ইসলামী ব্যাংকের কারেন্ট অথবা সেভিংস একাউন্ট আছে এমন একজন ইন্ট্রোডিউসার ।

২। স্টুডেন্টের দুই কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি (ইন্ট্রোডিউসার কর্তৃক সত্যায়িত হতে হবে) ।

৩।  নমিনির ১ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি (স্টুডেন্ট কর্তৃক সত্যায়িত হতে হবে) ।

৪। স্টুডেন্টের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক প্রদত্ত আইডি কার্ডের ফটোকপি ।

৫। স্টুডেন্ট এনআইডি কার্ড এবং নমেনির এনআইডি কার্ড ।

৬। ইউটিলিটি বিলের কপি ।

স্টুডেন্ট এর বয়স যদি ১৮ বছরের নিচে হয় অর্থাৎ ১৮ বছরের কম হয় তবে যে সমস্ত ডকুমেন্ট বা কাগজপত্র লাগবে তা হলো ----

১। ইসলামী ব্যাংকের কারেন্ট বা সেভিংস একাউন্ট আছে এমন একজন ইন্ট্রোডিউসার ।

২। অভিভাবক বা স্টুডেন্টের দুই কপি করে ছবি (ইন্ট্রোডিউসার কর্তৃক সত্যায়িত) ।

৩। নমিনীর ১ কপি ছবি (অভিভাবক কর্তৃক সত্যায়িত) ।

৪। স্টুডেন্ট এর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক প্রদত্ত আইডি কার্ড ।

৫। স্টুডেন্টের জন্ম নিবন্ধন সনদ ।

৬। স্টুডেন্টের অভিভাবক ও নমিনির এনআইডি কার্ড ।

৭। ইউটিলিটি বিলের কপি ।

ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট চেক

সাধারনত ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট এর ক্ষেত্রে চেক প্রদান করার প্রয়োজন হয় না । ভিসা বা এটিএম কার্ডের মাধ্যমে লেনদেন করতে পারবে । যদি কোন স্টুডেন্ট মনে করে যে তার অ্যাকাউন্ট পরিচালনা করার জন্য চেক এর দরকার তাহলে তাকে ব্যাংক কর্তৃক নির্ধারিত ফি প্রদান করে চেকবুক গ্রহণ করতে হবে ।

ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট মুনাফার হার

ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট এর মুনাফার হার সেভিংস একাউন্টের মুনাফা হারের সমান । সাধারণত ইসলামী ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট এর মুনাফা ৩.৫% । এই মুনাফা বিশেষ করে ৬ মাস পর পর দেওয়া হয় । স্টুডেন্ট একাউন্টের জন্য সমান মুনাফা প্রযোজ্য ।

ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট ভিসা কার্ড

ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট এর জন্য ভিসা কার্ড বা এটিএম কার্ড একদম ফ্রিতে প্রদান করা হয় । এর জন্য কোন প্রকার চার্জ দিতে হয় না । এই ভিসা বা এটিএম কার্ডের মাধ্যমে একজন ইস্টুডেন্ট যে কোনো এটিএম বুথ থেকে টাকা উত্তোলন করতে পারবে ।

ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট অসুবিধা

ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট এর কোন প্রকার অসুবিধা নাই । অসুবিধা মাত্র একটাই সেটা হলো স্টুডেন্টের বয়স ১৮ বছরের নিচে বয়স হলে এই একাউন্টের পরিচালনার ভার একজন অভিভাবককে নিতে হয় । এটাই মূলত অসুবিধা বলা যায় । তা ছাড়া অন্য কোন প্রকার অসুবিধা নাই ।

বন্ধুরা আশা করি আজকের "ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম | Islami Bank Student Account" আলোচনা আপনাদের ভালো লেগেছে । এই রকম আনকমন এবং আপডেট সমস্ত লেখা পেতে চোখ রাখুন “বাংলা আইটি ব্লগ ৩৬০” ব্লগে । এছাড়াও যদি আরও কোনও বিষয়ে লেখা পড়তে চান তাহলে কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করুন । আজ এ পর্যন্তই । আল্লাহ হাফেজ ।।


আরও পড়ুন: বিকাশ থেকে ঋণ নেওয়ার উপায় | Ways to Get Loan From bKash

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url